মোবাইল ব্যালেন্স থেকে বিকাশে টাকা টান্সফার – মোবাইল একাউন্ট থেকে কি বিকাশে টাকা পাঠানো সম্ভব?

অনেকে ভুলবশত তাদের মোবাইল ফোনের ব্যালেন্সে অতিরিক্ত অর্থ যোগ করে ফেলেন। কিন্তু সেই টাকা খরচ করার দরকার নেই।

সেক্ষেত্রে আপনি মোবাইল থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার করতে চাইবেন। কিন্তু এটা কি সত্যিই সম্ভব??

আজকের আলোচনায় আমরা সেটা বোঝানোর আপ্রাণ চেষ্টা করব। অনুগ্রহ করে পুরো নিবন্ধটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

আপনি যদি তাড়াহুড়ো করে বিকাশ বা রকেটে টাকা পাঠান, তাহলে আপনি

আপনার ফোন রিচার্জ করতে ভুলে যান। দেখে মনে হচ্ছে আপনি কাউকে 1000

টাকা পাঠানোর চেষ্টা করছেন৷ কিন্তু Send Money এর পরিবর্তে আপনি ভুল করে Buy Airtime অপশনে ক্লিক করেছেন৷

সেক্ষেত্রে বিকাশ অ্যাকাউন্টে না গিয়ে তার মোবাইল ব্যালেন্সে টাকা যোগ হবে।

মোবাইল ব্যালেন্স থেকে বিকাশে টাকা টান্সফার

আপনার প্রয়োজনের সময় টাকা না থাকলে অর্থ অকেজো। অর্থাৎ, অর্থ অবশ্যই ব্যক্তির কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

কিন্তু মোবাইল ফোনে টাকা গেলে কোনো ব্যক্তি টাকা তুলতে পারবেন না।

তাহলে কি অন্য কোন উপায়ে টাকা তোলা সম্ভব? আপনি মোবাইল ফোন থেকে অন্য

নম্বরে মিনিট বা ইন্টারনেট প্যাকেজ দিয়ে অর্থ ব্যবহার করতে পারেন।

এছাড়াও বর্তমানে বাংলাদেশের সকল ব্যবহারকারীরা রেট ট্রান্সফার সুবিধা দিচ্ছে।

কিন্তু এর জন্য আপনাকে নিবন্ধন করতে হবেএবং প্রতিটি স্থানান্তরের জন্য ফি দিতে হবে।

ব্যালেন্স ট্রান্সফার সুবিধা কি?

ব্যালেন্স ট্রান্সফার হল একটি টুল যেখানে আপনি আপনার মোবাইল ফোন থেকে অন্য মোবাইল ফোনে টাকা ট্রান্সফার করতে পারেন।

সেক্ষেত্রে আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ফি কেটে নেওয়া হবে।

এর জন্য আপনাকে অবশ্যই মানি ট্রান্সফার সার্ভিসের জন্য নিবন্ধন করতে হবে। গ্রামীণফোন বাংলালিংক রবি এয়ারটেল

এবং টেলিটক সিমে মানি ট্রান্সফার সার্ভিস পাওয়া যাচ্ছে।

100 টাকার প্রতি ট্রান্সফারের জন্য মোট 3 টাকা চার্জ করা হয়। অর্থাৎ, আপনি যদি

1000 টাকা ট্রান্সফার করতে চান তাহলে আপনাকে 30 টাকা ফি দিতে হবে।

এটি একটি ব্যয়বহুল সমস্যা। এবং আপনি প্রতি মাসে 10টির বেশি ব্যালেন্স স্থানান্তর করতে পারবেন না।

এখানে উল্লেখ করা উচিত যে সর্বাধিক 1,000 টাকার স্থানান্তর সম্ভব নয়৷ তাহলে অন্য

কোন উপায়ে আমরা ব্যালেন্স মোবাইল থেকে টাকা ট্রান্সফার করতে পারি?

বিকল্প ব্যবস্থা

আপনি বিভিন্ন অপারেটরের অফিসিয়াল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে অন্যান্য নম্বর

থেকে মিনিট ইন্টারনেট এসএমএস বান্ডেল কিনতে পারেন।

উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি একজন গ্রামীণফোন গ্রাহক হন, আপনি মাই জিপি অ্যাপের মাধ্যমে

আপনার অ্যাকাউন্ট শাখা থেকে অন্য জিপি নম্বরে ইন্টারনেট

মিনিট বা মাল্টি-মিনিট ক্রয় করতে পারেন। একইভাবে এয়ারটেল বা রবি সিমে উল্লেখিত পরিষেবা রয়েছে।

গ্রামীণফোন ফ্লেক্সিপ্ল্যান থেকে কীভাবে ইন্টারনেট মিনিট রিডিম করবেন তা পরে আলোচনা করা হবে।

সর্বশেষ কথা

আমরা জানি আপনি এখন কোন সিচুয়েশন এর মধ্যে । যেহেতু সরাসরি মোবাইল ব্যালেন্স

থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার বা সেন্ড মানি করা যায় না সে জন্য বিকল্প ব্যবস্থা আপনাদের দেখানো হলো।

এতে যদি আপনারা বিন্দুমাত্র উপকৃত হন তাহলে আমাদের পরিশ্রম সার্থক বলে মনে হবে।

আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন:

  • বিকাশ থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার
  • এক মোবাইল থেকে অন্য মোবাইলে টাকা পাঠানোর নিয়ম
  • সিম থেকে টাকা ট্রান্সফার
  • গ্রামীন সিম থেকে টাকা ট্রান্সফার
  • রবি সিম থেকে গ্রামীন টাকা ট্রান্সফার
  • রবি সিম থেকে টাকা ট্রান্সফার করার নিয়ম
  • বিকাশ থেকে ভুলে মোবাইল রিচার্জ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *